শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
রাজশাহীতে দুর্নীতি জালিয়াতি বদলি বাণিজ্যে মাউশির ডিডি রাজশাহীতে শুটারগান ও ফেন্সিডিলসহ অস্ত্র কারবারী গ্রেপ্তার চারঘাটে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬ প্রার্থী কাস্টমস আইন, ২০২৩ বাস্তবায়নকল্পে চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রশিক্ষণ কর্মশালা সরিষাবাড়ীতে নন গ্রুপ কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত চক্ষু হাসপাতালের সেবার মান বৃদ্ধিতে অত্যাধুনিক এ্যালকোন ফ্যাকো মেশিন সংযোজন নাটোর সদর থেকে ২৪ হাজার টাকা জাল নোটসহ স্বামী-স্ত্রী কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৫ রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা প্রেসক্লাবে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত সরিষাবাড়ীতে শ্রেষ্ঠ সমবায়ী নির্বাচিত হলেন সাংবাদিক এম এ রউফ নিয়ামতপুরে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জামানত হারাচ্ছেন ৬ প্রার্থী

তানোরে আদিবাসী নারীকে গণধর্ষণের পর পরেই পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ৩

দেলোয়ার হোসেন সোহেল
প্রকাশিতঃ শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন

রাজশাহীর তানোরে আলু কুড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার এক আদিবাসী নারী। এতে গণধর্ষণের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে তানোর থানার চৌকস পুলিশ টিম। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, তানোর উপজেলার কলমা ইউনিয়নের চকরতিরা(শালতলা) গ্রামের বাজুন মারর্ডীর পুত্র সামুয়েল মার্ডী(২৫),কিলিশ মুর্মুর পুত্র রুবেল মুর্মু(২১),নরেশ হাঁসদার পুত্র শিবেন হাঁসদা(২২)। এমন চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে,রোববার (২৩মার্চ) দিবাগত রাতে উপজেলার কলমা ইউনিয়নের শালতলা গ্রামে।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমাস্তাপুর উপজেলার রতনপুর গ্রামের মৃত ফ্রান্সিস হাঁসদার জনৈক মেয়ে (২০) তার দুই বোনকে নিয়ে কলমা ইউনিয়নের শালতলা গ্রামের তার পিসির বাড়িতে আলু কুড়াতে আসেন। এতে করে আলু কুড়াতে গিয়ে সামুয়েল মার্ডীর সাথে পরিচয় হয়। এতে করে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রাত ৮টার দিকে সামুয়েল মার্ডী জনৈক নারীকে তার পিসির বাড়ির পিছনে একটি আম বাগানে ডাকেন। সেখানে জনৈক নারী উপস্থিত হলে,দলবদ্ধ হয়ে তাকে হাত পা বেঁধে তিনজন মিলে জনৈক নারীকে গণধর্ষণ করেন।

এতে জনৈক নারীর ডাক চিৎকারে আসপাশের মানুষ ছুটে আসলে তাকে ফেলেই পালিয়ে যান ধর্ষণকারীরা। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে বাসায় নিয়ে যান। এঘটনায় গণধর্ষণের শিকার জনৈক নারী বাদী হয়ে তানোর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় ও সহকারী পুলিশ সুপার গোদাগাড়ী (সার্কেল) সোহেল রানার হস্তক্ষেপ ও ওসি আব্দুর রহিমের নেতৃত্বে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে গণধর্ষণের তিনজন আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আব্দুর রশীদ। এবিষয়ে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আব্দুর রহিম জানান, গণধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হলে,বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে আসামীদের গ্রেফতার করা হয়।


আরো পড়ুন